সোহেল কসাইয়ের ঈদ বোনাস ১,৪৫০০০ টাকা

Ads

সোহেল কসাই একদিনে আয় করেছেন ১ লাখ ৪৫ হাজার টাকা। আজ ঈদের দিনে তিনি ৯টি গরু ও ৪ টি ছাগল কাটাছেঁড়া করে এ পরিমাণ টাকা আয় করেন। অবশ্য তিনি একে ঈদ বোনাস হিসাবে আখ্যায়িত করেন। বলেন, মাতুয়াইলে আমার মাংসের দোকান আছে। কসাই হিসাবে সবাই আমাকে চেনেন। প্রতি বছর কোরবানি ঈদকে কেন্দ্র করে আমরা কসাইরা উৎসবে মেতে উঠি। অন্যান্য বছর ১৪/১৫ টি গরু পেলেও এবার পেয়েছি ৯ টি। আমার দলে চারজন সদস্য।

সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করি। এরপর হাসি মুখে টাকা নিয়ে বাসায় ফিরি। টাকা ছাড়াও সবাই খুশি মনে মাংস দেন। যা আমাদের জন্য বাড়তি পাওনা। সোহেল বলেন, এবার মূল্য হিসাবে হাজারে ১২০ টাকা করে মজুরি নিয়েছি। লাখে ১২০০০ টাকা। কেউ আরো বেশি নিয়েছে। সর্বনিম্ন হাজারে ১০০ টাকা করে নিয়েছে কেউ কেউ। কসাই সোহেলের বাড়ি পটুয়াখালী জেলার বাউফলের কালাইয়া। তিনি বলেন ঢাকায় কসাইয়ের কাজ করি এক যুগের উপরে। আজ তার সঙ্গে কথা হয় কদমতলীর মদিনাবাগে। ব্যবসায়ী সেলিম রেজার গরুর চামড়া ছাড়ানো থেকে মাংস কাটার কাজ করেন কসাই সোহেল। সেলিম রেজা এক লাখ চল্লিশ হাজার টাকা দিয়ে গরু কেনেন। তিনি বলেন, প্রতি বছরই কসাই সোহেল আমার কোরবানির গরুর কাজ করেন। এজন্য তাকে এবার দিতে হয়েছে হাজারে ১২০ টাকা করে। মোট দিয়েছি ১৪ হাজার ৮০০ টাকা। সেলিম রেজা বলেন, আমরা এ কাজ করলে সন্ধ্যা হয়ে যাবে। তাছাড়া চামড়া ছাড়াতে পারিনা। কসাইকে দিলে দ্রুত কাজ শেষ হয়ে যায়। সবচেয়ে বড় কথা গরু কাটাছেঁড়া করার যন্ত্রপাতিও নেই। মোট কথা মনে হয় এটা ঝামেলার কাজ। তাই কসাইয়ের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছি। আরেক ব্যবসায়ী আলী হোসেনও ঝামেলামুক্ত থাকতে কসাইয়ের দারস্থ হন প্রতি বছর। এবার তিনি বিল্লাল কসাইয়ের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন। বিল্লাল কসাই নিয়েছেন গরুর মূল্যের উপর হাজারে ১০০ টাকা করে। কোরবানি দাতাদের কাছে এ টাকা মজুরি হলেও কসাইরা একে মনে করেন ঈদ বোনাস। তারা আনন্দ নিয়ে কাজ করেন। বোনাস নিয়ে বাড়ি ফেরেন।সূএ:মানবজমিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here