করোনাপূর্ব আমেজ রাজধানীর কারওয়ান বাজার

Ads

রাজধানীর সবচেয়ে বড় কাঁচাবাজার কারওয়ান বাজারের চারপাশে ফুটপাতে অসংখ্য ছোটো ছোটো দোকান। মৌসুমের সবধরনের ফল, শাকসবজি পাওয়া যায় সেসব দোকানে। পাইকারিও যেমন কেনা যায়, খুচরাও কেনা যায়। মানেও যেমন ভালো, দামও অন্য জায়গার চেয়ে তুলনামূলক কম এখানে। সবমিলিয়ে এই বাজারের সৌন্দর্যও যেন এসব ফুটপাতের দোকানপাট।

করোনার শুরুর দিকে বড় আঘাত এসেছিল এই বাজারের ফুটপাতের সেসব দোকানে। সেগুলো বন্ধ করে দিয়েছিল প্রশাসন। অল্প কিছুদিন পর ফের তাদের বসতে দেয়া হয়। ফলে কারওয়ান বাজারে করোনার মধ্যেও লোকসমাগম থেমে ছিল না

তবে লকডাউন, মালামাল না আসা, মানুষের ঘর থেকে না বের হওয়াসহ নানা কারণে ফুটপাতের দোকান বসা কিছুটা কমে আসে। পাশাপাশি তাদের শাকসবজি, ফুলমূলের বৈচিত্র ও পরিমাণও কমে আসে। ফলে দোকানপাট বসলেও শূন্যতার একটা অনুভূতি থেকেই গেছিল বাজারে।

লকডাউন উঠে যাওয়া, করোনা আতঙ্ক কিছুটা কমে আসা, ঈদুল আজহার শেষে – সবমিলিয়ে ফের পুরোনো সেই আমেজ ফিরে এসেছে কারওয়ান বাজারে। সোমবার (১০ আগস্ট) সকালে কাঁচাবাজারে গিয়ে দেখা যায়, বাজারের দুইপাশের ফুটপাতে মৌসুমী ফুলমূল, শাকসবজিতে ভরপুর দোকানগুলো। মানুষও আসছে, বেচাকেনা হরদম।

দোকানিরা বলছেন, করোনা শুরুর দিকে প্রথম ১০ দিনের মতো তাদের দোকানপাট বন্ধ ছিল। করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য তাদের বসতে দেয়নি পুলিশ। তারপরে বসতে দেয়। তখন লকডাউনের কারণে মালামাল আসা, বিক্রি সবই কম ছিল। এখন সবকিছুই অনেকটাই স্বাভাবিক।

তবে বাজার ঘুরে দেখা গেল, দোকানি-ক্রেতা অধিকাংশেরই মুখে মাস্ক নেই। আর শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার কোনো ব্যবস্থা বা সুযোগও নেই এখানে। হাত ধোয়ারও ব্যবস্থা চোখে পড়ল না। করোনা নিয়ে বিশেষ কোনো উদ্বেগও লক্ষ্য করা গেল না।সূএ:জাগোনিউজ২৪.কম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here