Ads

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলা ভূমি অফিসে প্রত্যয়নপত্রসহ বিভিন্ন কাজে ঘুষ ছাড়া কাজ হয় না বলে অভিযোগ উঠেছে। উল্টো হয়রানির শিকার হতে হয় অনেক ভুক্তভোগীদের।

এদিকে, মাদারীপুরের শিবচর ভূমি অফিসের এক পেশকারের ঘুষ লেনদেনের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।.

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ভূমি অফিসের পেশকার লিটন বিশ্বাস একজন ভুক্তভোগীর কাছ থেকে অফিস কক্ষেই টাকা নিচ্ছেন। এছাড়া ভোগান্তি থেকে রক্ষা পেতে এক ভুক্তভোগী লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন।.

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বনবিভাগের একটি লাইসেন্স পাওয়ার জন্য খবির মোল্লা নামে এক ব্যক্তির ভূমি অফিসের প্রত্যয়ন দরকার হয়। দীর্ঘ ৩ মাস যাবৎ প্রত্যয়ন পত্রের জন্য ভূমি অফিসের এ টেবিল থেকে ও টেবিলে ধরনা ধরেও পায়নি প্রত্যয়নপত্র।

প্রত্যয়নের জন্য ভূমি অফিসের সার্টিফিকেট পেশকার লিটন বিশ্বাসের কাছে গেলে তিনি বিভিন্ন অজুহাতে হয়রানি করে ভুক্তভোগী মো. খবির মোল্লাকে। ১০ হাজার টাকা দিলে প্রত্যয়ন পাওয়া যাবে বলে জানায় সার্টিফিকেট পেশকার লিটন বিশ্বাস। কোনো উপায় না পেয়ে ভুক্তভোগী একপর্যায়ে তাকে ৫ হাজার টাকা প্রদান করেন।.

এদিকে, হয়রানির শিকার হয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভুক্তভোগী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী মুজিববর্ষ উপলক্ষে সকল অফিসে সর্বোচ্চ ভালো সেবা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শিবচর উপজেলার ভূমি অফিসের একজন সার্টিফিকেট পেশকারের দ্বারা হয়রানির শেষ নেই।.

কোনো কাগজপত্র আনতে গেলেই ১০ হাজার ২০ হাজার টাকা করে দিতে হয়। অথচ এসব সেবা বিনামূল্যে দেওয়ার কথা থাকলেও ভূমি অফিসের কর্মচারীরা গ্রাহকদের নানাভাবে হয়রানি করে যাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত লিটন বিশ্বাস ঘুষ লেনদেনের বিষয়টি অস্বীকার করেন।

শিবচর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. রকিবুল হাসান বলেন, ভূমি অফিসে প্রত্যয়নের জন্য কোনো টাকা লাগে না।.

শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আসাদুজ্জামান বলেন, এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  সূএ:bangla-bazaar.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here